মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদ, মানিকগঞ্জ

নাম                     : আলহাজ্ব এডঃ গোলাম মহীউদ্দীন
পিতার নাম             :    মরহুম গোলজার হোসেন
মাতার নাম             :    মরহুম রাবেয়া বেগম
জন্ম তারিখ             :     ৪ এপ্রিল ১৯৫২ইং
জন্ম স্থান                :    রামকৃষ্ণপুর ভাটিকান্দি, ডাকঘর-লেছড়াগঞ্জ,
                               থানা-হরিরামপুর, জেলা-মানিকগঞ্জ।

 


প্রাথমিক শিক্ষা           :    রামকৃষ্ণপুর ভাটি কান্দি প্রাথমিক বিদ্যালয়
                                  ও লেছড়াগঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়।

মাধ্যমিক শিক্ষা            :    পাটগ্রাম অনাথ বন্ধু আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়,
                                 হরিরামপুর। নাজনীন হাইস্কুল, গ্রীন রোড, ঢাকা।

উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা        :    সরকারী দেবেন্দ্র কলেজ, মানিকগঞ্জ।

বিশ্ববিদ্যালয়              :   অষ্ক শাস্ত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ১ম পর্ব পাশ ১৯৭৫
                                সনের জাতির জনকের মৃত্যুর পর ২য় বর্ষের পরীক্ষা দেওয়া হয়নি।
শিক্ষা অর্জন              :     বি.এস.সি,এল.এল.বি।



ছাত্র রাজনীতি    :    
# ১৯৬৬ সনের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত ছয়দফা আন্দোলনের সক্রিয় অংশ গ্রহণ। ঐ সময়ে হরিরামপুর থানা ছাত্র লীগের দফতর সম্পাদক।
# ১৯৬৮ সনের হরিরামপুর থান ছাত্র লীগ ও দেবেন্দ্র কলেজ ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক
# ১৯৬৯-৭০ সনে মানিকগঞ্জ মহকুমা ছাত্র লীগ শিক্ষা পাঠচক্র সম্পাদক ও মহকুমা ছাত্রলীগ গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক।
# ১৯৭১ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে মহান মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। যুদ্ধকালীন সময়ে আলফা কোম্পানী কমান্ডার মানিকগঞ্জ পশ্চিমাঞ্চল।
# ১৯৭২   হরিরামপুর থানা ছাত্র লীগ সভাপতি ও  জেলা ছাত্র লীগ সহ-সভাপতি।
# ১৯৭৫ বঙ্গবন্ধু ঘোষিত বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন জাতীয় ছাত্রলীগের মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক।
#  ১৯৭৫ সনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শাহাদৎ বরণের পর প্রচার পত্র প্রকাশ ও ব্যাপক ভাবে প্রচার করেন। ঝুঁকিপূর্ণ দুঃসাহসিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করে চরম দুঃসময়ে দেশব্যাপী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সংগঠন শক্তিশালী করতে সক্রিয়া ভূমিকা রাখেন। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু হত্যার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন।
# ১৯৭৬ সনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সংসদের সদস্য। পরবর্তীতে দপ্তর সম্পাদক।
# ১৯৭৭ সনে বাংলাদেশ ছাত্র লীগের কেন্দ্রীয়  জনাব ওবাদুল কাদের কমিটির ১ম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।
# ১৯৮২ সনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ১ম সহ-সভাপতি।
# কেন্দ্রীয় ছাত্র রাজনীতি করা কালীন বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ জননেত্রী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি হওয়া অপরিহার্য আন্দোলনে দেশব্যাপী সক্রিয় ভূমিকা পালন।



বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি :
#১৯৭৭ মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য।        
# ১৯৮০ জেলা আওয়ামী লীগ প্রচার সম্পাদক।
# ১৯৮৪ মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এক নাগারে ৩ টার্ম ২০০৩   
   সন পর্যন্ত মোট ১৯ বছর।
# ২০০৩ সন হতে মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব  
    পালন।
# ২০১৫ সনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনার
নির্দেশে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় পুনরায় মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নির্বাচিত এবং কর্মরত।
# ১/১১ এর সময় রাষ্ট্রের এবং দলের ক্রান্তিকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা যখন কারাগারে তখন দুঃসাহসিক ভূমিকা পালন।



জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ :
জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরতœ জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ১৯৮৬, ১৯৯১, ২০০১ জাতীয় সংসদে ১৭৩-মানিকগঞ্জ-২ আসনে মনোনয়ন দেন। অবৈধ অর্থ ও ষড়যন্ত্রের কাছে পরাজয়।
সাংগঠনিক কার্যক্রম ঃ
১৯৭৫ সালের ১৫ই আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু নিমর্ম হত্যা কান্ডের পর মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের উপর অত্যাচার নির্যাতন নেমে আসলে চরম দুরাবস্থার মধ্যে নিপাতিত হলে শক্ত হাতে সংগঠনকে ধরে রাখেন-গতিশীল করেন। জেলার প্রত্যেক ইউনিয়নের তৃণমূল ত্যাগী নেতা কর্মীদের সংগঠিত করেন।
বিশেষ বৈশিষ্ট্য    :
জীবনে কোনদিন দলছুট বা দল ত্যাগ করেননি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আর্দশ এবং দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনার সঠিক নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা বিশ্বাস রেখে অত্যন্ত সাদামাটা জীবন যাবন ও হাসি মাখা মুখে মানুষের সঙ্গে মিশে নীতি আর্দশ উচু শীরে দৃঢ়তার সঙ্গে সংগঠন পরিচালনা করছেন।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে :
বিচারপতি নূরুল ইসলাম কলেজের সভাপতি, বেগম জরিনা কলেজের সভাপতি, মানিকগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার সহ সভাপতি, দক্ষিণ চাঁদপুর  হাইস্কুলের সাবেক সভাপতিসহ বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সমাজসেবা মূলক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন।
পারিবারিক জীবন :
দুই কন্যা  মৌসুমী আক্তার ও নাজমুন নাহার মুনমুন বিবাহিত, একপুত্র শাহ্ নেওয়াজ
মহীউদ্দীন শোভন অধ্যায়রত। স্ত্রী শামছুন নাহার বেগম ২০০৮ সনের ২১ ফেব্রুয়ারী
ইন্তেকাল করেন।
# মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেন ২০১১ এর ১৫ ডিসেম্বর।
 গত ২৮ ডিসেম্বর ২০১৬ জেলা পরিষদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সুনামের সাথে কর্মরত।

 


ইমেল-Zilaparishad_manikganj@hotmail.com