মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

খেলাধুলা

                                  

খেলাধূলা

মানিকগঞ্জ একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন জনপদ। ইতিহাস, ঐতিহ্য, শিক্ষা, শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতির পাশাপাশি ক্রীড়াঙ্গনও অন্যান্য ক্ষেত্রের মত স্ব-মহিমায় উজ্বল। মানিকগঞ্জের অনেক খ্যাতিমান ক্রীড়াবিদ স্থানীয় পর্যায়সহ আর্ন্তাজাতিক পর্যায়ে দেশের ভাব-মূর্তি উজ্জ্বল করেছে। তাদের মধ্যে অন্যতম শহীদ মিরাজ উদ্দিন, শহীদ তপন চৌধুরী, মিসেস কোয়েল, শামীম আরা টলি, রুহুল আমিন বাচ্চু, বিকাশ চৌধুরী বাচ্চু, শহীদুল হক খোকন, দেওয়ান  শফিউল আরেফিন টুটুল, মোশারফ হোসেন বাদল, নাইমুর রহমান দূর্জয়, সোহেল আল মাসুম, মোর্শেদ আলী খান সুমন, জাহিদ হাসান রাজু, নাজরানা খান ইভা, ইসরাত জাহান রূমা প্রমূখ। বর্তমান প্রজন্মের খেলোয়াড়েরাও তাদের অতীত ঐতিহ্য সমুন্নত রেখে ভবিষ্যতের অনন্য সাফল্যকে ধরে রাখার প্রানান্তকর চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। মানিকগঞ্জ জেলার সামগ্রিক অবস্থার আলোকে ফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল, এ্যাথলেটিক্স, ব্যাডমিন্টন, হা-ডু-ডু, দাবা, ম্যারাথন, সাঁতার, লনটেনিস, হ্যান্ডবল, কাবাডি, ক্যারাম, লাঠিখেলা ও নৌকা বাইচের প্রচলন রয়েছে। সময়ের সাথে সাথে সুযোগ সুবিধার অভাবে ঐতিহ্যগত বেশ কিছু খেলা হারিয়ে গেছে। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য জিমন্যাস্টিক্স, দাঁড়িয়াবাধা, হকি, টেবিল- টেনিস, গোল্লাছুট, কানামাছি, মৌছি অন্যতম।

ক্রীড়া চর্চার অন্যতম উপাদান হচ্ছে খেলার মাঠ। এই জেলায় ০১ টি ষ্টেডিয়াম( শহীদ মিরাজ-তপন ষ্টেডিয়াম) সহ ছোট বড় ১১০টি খেলার মাঠ রয়েছে। যার মধ্যে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় ২৪টি, সিংগাইর উপজেলায় ১৫ টি, ঘিওর উপজেলায় ১২টি, সাটুরিয়া উপজেলায় ১৯ টি, শিবালয় উপজেলায় ১৬ টি, হরিরামপুর উপজেলায় ১০ টি এবং দৌলতপুর উপজেলায় ১৩টি ।

মানিকগঞ্জ জেলার অর্ন্তগত এই সকল মাঠে নিয়মিত অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে ফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল, এ্যাথলেটিক্স, ব্যাডমিন্টন। এছাড়া গ্রাম পর্যায়ে হা-ডু-ডু খেলাটি এখনও অত্যন্ত জনপ্রিয়। বিশেষ করে সদর উপজেলার পালোরা, মিতরা, সাটুরিয়া উপজেলার পাতিলাপাড়া, ভোঁয়া, দৌলতপুর উপজেলার চরকাটারী বাচামারা, জিয়নপুর, ঘিওর উপজেলার বালিয়াখোড়া ও বাঠইমুরী, সিংগাইর উপজেলার জয়মন্টপ, বায়রা, বাস্তা, আঠালিয়া, ভূমদক্ষিণ জায়গির অঞ্চলসহ হরিরামপুর চরাঞ্চলে এই খেলাটির ব্যাপক প্রচলন রয়েছে।

 

নৌকাবাইচঃ

ঘিওর উপজেলার হেলাচিয়া গ্রামে ইছামতি নদীতে শত বছর ধরে নিয়মিত  নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়াও সদর উপজেলার বেউথায় কালীগঙ্গা নদীতে, হরিরামপুর উপজেলার সাপাই দিয়াবাড়ীবিল, দৌলতপুর উপজেলায় সমেদপুর গ্রামে ইছামতি নদীতে, সিংগাইর উপজেলায় চান্দহর, ধলেশ্বরী এবং ঘিওর উপজেলায় জাবরা ইছামতি নদীতে নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

 

লাঠিখেলাঃ

        লাঠিখেলা এই জেলার একটি ঐতিহ্যবাহী এবং জনপ্রিয় খেলার মধ্যে অন্যতম। দীর্ঘকাল ধরে হরিরামপুর উপজেলাসহ এর আশে পাশের এলাকায় এই লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত হয়। বিশেষ করে বিয়ে বাড়ীতে ও অন্যান্য সামাজিক অনুষ্ঠানগুলিতে লাঠি খেলার আয়োজন করা হয়। এ ছাড়াও দৌলতপুর উপজেলার চরাঞ্চলে এ খেলাটির প্রচলন রয়েছে। লাঠিখেলার সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তিরা ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন  এলাকায় সম্মানীর বিনিময়ে লাঠিখেলা প্রদর্শন করে থাকে।

 

ব্যাডমিন্টনঃ

        শীত মৌসুমে মানিকগঞ্জ জেলাব্যাপী ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়ে থাকে। জেলা সদরে সেওতা, বান্দুটিয়া, পৌরসভা চত্বরে টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া ঘিওর উপজেলার পাবলিক লাইব্রেরী মাঠে প্রতি বছর অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্নভাবে টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়। এ টুর্নামেন্টে দেশের সেরা খেলোয়াড়রা অংশ গ্রহণ করে থাকে

 

লনটেনিসঃ

        মানিকগঞ্জ জেলার একমাত্র লনটেনিস গ্রাউন্ডে সন্ধ্যা থেকে রাত অবধি নিয়মিত লন টেনিস খেলা হয়।

ছবি


সংযুক্তি